মেহনতি মানুষের দৈনিক

আজ ,

লক্ষ্মীপুর থেকে প্রকাশিত ।। রেজি: নং : চ- ৬৩৯/১২।।

ভ্রাম্যমান সেলুনে দেলোয়ারের জীবন সংগ্রাম

বিশেষ প্রতিনিধি : শহরের সেলুনগুলোতে চুল কাটা সেভ করতে একজন মানুষের খরচ হয় ৬০ টাকা। আমার সেলুনে দিতে হয় ২০ টাকা। তাদের পে শহরে গিয়ে ভালো সেলুনে ৬০ টাকা খরচ করে চুল কাটা ও সেভ হওয়া সম্ভব নয়। তাই তারা আমার সেলুনে সেবা পেয়ে খুবই আনন্দিত হয় এবং আমিও আনন্দিত হই। সোমবার লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানা মসজিদের সামনে তার লাভলী হেয়ার কাটিং নামের এ সেলুনে এক রিক্সাচালকের চুল কাটছেন আর কথাগুলো বলছেন দেলোয়ার হোসেন (৪০)।

দেলোয়ার হোসেন জানান, জেলা দালাল বাজার ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামে তার বসবাস। পিতা-মাতা ও ভাই-বোন কেউ নেই। স্ত্রী রুবী আক্তার, ছেলে আবদুল্লা (১৬) ও মেয়ে নিলুফার ইয়াছমিনকে (৬) নিয়ে তার সংসার। ২৫ বছর আগে চট্টগ্রাম ভাটিয়ারি হাজী মোবারক আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। সেই সময় দারিদ্রতার কারনে আর পড়াশোনা করতে পারেননি। মানুষের বাড়িতে থেকে অর্থাৎ গৃহশিক হিসেবে ৭ বছর সময় পার করেন। পরে চলে আসেন তার গ্রামের নিজ বাড়িতে। চট্টগ্রামে কোন কাজ না পারায় বা টাকা না থাকায় ব্যবসা বানিজ্যও করা সম্ভব হয়নি। তাই একান্ত বাধ্য হয়েই ৫ বছর রিক্সা চালান। ব্যবসা করতে বা একটা চা দোকান দিতে অনেকের কাছে টাকা ধার চান। টাকা না পাওয়ায় তিনি হতাশায় ছিলেন। শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত নেন নিজের তৈরি কাঠের রিক্সা চালিয়ে মানুষের সেবা করবেন। আর সেই রিক্সায় করে জেলার বিভিন্ন স্থানে দরিদ্র মানুষের সেবা দিয়ে থাকেন।

তিনি আরো বলেন, শহরের সেলুনগুলোতে চুল কাটতে ৪০ টাকা ও সেভ করতে ২০ টাকা একজন মানুষের কাছ থেকে নেয়া হয়। আমার এ সেলুনে উভয় কাজ করতে ২০ টাকা লাগে। আমার সেলুনে সেবা নিতে আসেন রিক্সা চালক, কৃষক, দিনমজুরসহ নিন্ম আয়ের মানুষেরা। আমি সরকারি বা কোন দানশিল ব্যক্তির কাছ থেকে আর্থিক সহযোগিতা পেলে এ পেশা ছেড়ে দিয়ে একটি দোকান নিয়ে জীবন যাপন করার ইচ্ছা রয়েছে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা যুবায়েদ আহাম্মেদ বলেন, দেলোয়ার হোসেনের মতো আরো অনেক মানুষ রয়েছেন। তারা সহযোগিতা চাইলে তাদেরকে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে পুনর্বাসন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *